ঢাকা ০৭:২৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের মহাসড়ক অবরোধ

Spread the love

সরকারি চাকরিতে কোটা পদ্ধতির সংস্কারের দাবিতে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধ করেছে। আজ বুধবার দুপুর ২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের জয় বাংলা চত্বর থেকে শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ মিছিল শুরু করে। মিছিলটি ময়মনসিংহের ত্রিশাল জিরো পয়েন্টে গিয়ে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধ করে। শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন স্লোগান দিয়ে কোটা বাতিলের দাবি জানান।

আরও পড়ুন>>শিক্ষার্থীদের ক্লাসে ফেরার আহ্বান প্রধান বিচারপতির

‘বিদ্রোহীর আঙিনায়, বৈষম্যের ঠাই নাই’, ‘মেধা না কোটা, কোটা কোটা’, ‘বঙ্গবন্ধুর বাংলায়, বৈষম্যের ঠাঁই নাই’, ‘একাত্তরের হাতিয়ার, গর্জে উঠুক আরেকবার’, ‘কোটা ব্যবস্থার অবসান, ছাত্র সমাজের জয়গান’, ‘নারী যেখানে অগ্রসর, কোটা সেখানে হাস্যকর’ ইত্যাদি স্লোগানে মুখরিত হয়ে ওঠে রাজপথ। অবরোধের ফলে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। পুলিশ সতর্ক অবস্থানে থেকে যেকোনো অপ্রীতিকর ঘটনা এড়ানোর চেষ্টা করছে।

শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করেন, সরকারি চাকরিতে ৫৬ ভাগ কোটা থাকার কারণে সাধারণ শিক্ষার্থীদের মেধার অবমূল্যায়ন করা হচ্ছে। তাঁরা কোটা বাতিল নয়, বরং সংস্কার চান। অনগ্রসর জনগোষ্ঠী ও প্রতিবন্ধীদের জন্য সর্বোচ্চ ৫ ভাগ কোটা রাখার আহ্বান জানান। আজ উচ্চ আদালতের রায় তারা মেনে নেয়নি এবং জানিয়েছে যে, তাদের আন্দোলন আদালতের বিরুদ্ধে নয়, বরং নির্বাহী বিভাগ ও সংসদ থেকে কোটা সংস্কারের আদেশ চায়। দাবি পূরণ না হলে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির সঙ্গে আন্দোলন চলবে বলেও শিক্ষার্থীরা জানান।

জনপ্রিয় সংবাদ

নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের মহাসড়ক অবরোধ

আপডেট সময় : ০৩:৫৪:২৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ১০ জুলাই ২০২৪
Spread the love

সরকারি চাকরিতে কোটা পদ্ধতির সংস্কারের দাবিতে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধ করেছে। আজ বুধবার দুপুর ২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের জয় বাংলা চত্বর থেকে শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ মিছিল শুরু করে। মিছিলটি ময়মনসিংহের ত্রিশাল জিরো পয়েন্টে গিয়ে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধ করে। শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন স্লোগান দিয়ে কোটা বাতিলের দাবি জানান।

আরও পড়ুন>>শিক্ষার্থীদের ক্লাসে ফেরার আহ্বান প্রধান বিচারপতির

‘বিদ্রোহীর আঙিনায়, বৈষম্যের ঠাই নাই’, ‘মেধা না কোটা, কোটা কোটা’, ‘বঙ্গবন্ধুর বাংলায়, বৈষম্যের ঠাঁই নাই’, ‘একাত্তরের হাতিয়ার, গর্জে উঠুক আরেকবার’, ‘কোটা ব্যবস্থার অবসান, ছাত্র সমাজের জয়গান’, ‘নারী যেখানে অগ্রসর, কোটা সেখানে হাস্যকর’ ইত্যাদি স্লোগানে মুখরিত হয়ে ওঠে রাজপথ। অবরোধের ফলে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। পুলিশ সতর্ক অবস্থানে থেকে যেকোনো অপ্রীতিকর ঘটনা এড়ানোর চেষ্টা করছে।

শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করেন, সরকারি চাকরিতে ৫৬ ভাগ কোটা থাকার কারণে সাধারণ শিক্ষার্থীদের মেধার অবমূল্যায়ন করা হচ্ছে। তাঁরা কোটা বাতিল নয়, বরং সংস্কার চান। অনগ্রসর জনগোষ্ঠী ও প্রতিবন্ধীদের জন্য সর্বোচ্চ ৫ ভাগ কোটা রাখার আহ্বান জানান। আজ উচ্চ আদালতের রায় তারা মেনে নেয়নি এবং জানিয়েছে যে, তাদের আন্দোলন আদালতের বিরুদ্ধে নয়, বরং নির্বাহী বিভাগ ও সংসদ থেকে কোটা সংস্কারের আদেশ চায়। দাবি পূরণ না হলে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির সঙ্গে আন্দোলন চলবে বলেও শিক্ষার্থীরা জানান।