ঢাকা ০৫:৪১ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম
Logo নয়াদিল্লিতে আধুনিক পিথিয়ান গেমস প্রতিষ্ঠাতার বাংলাদেশ হাইকমিশনারের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ Logo রোকেয়া হলের মেয়েদের মুখে ‘রাজাকার’ স্লোগান, দুঃখ লাগে: প্রধানমন্ত্রী Logo রাজাকারের চেতনা যারা ধারণ করে তারাও রাজাকার : কাদের Logo ছাত্ররা নয়, অবৈধ সরকারই ‘রাজাকার’ : আ স ম রব Logo ঢাবিতে আন্দোলনকারীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলা Logo কলাপাড়ায় উল্টো রথযাত্রা অনুষ্ঠিত Logo কুয়াকাটায় তৃতীয় লিঙ্গের মানুষদের সৈকত পরিচ্ছন্নতা অভিযান Logo কোটা আন্দোলনে যাওয়ায় শিক্ষার্থীকে ছাত্রলীগ নেতার মারধরের অভিযোগ Logo দুর্নীতির বিরুদ্ধে টলারেন্স নীতি বাস্তবায়নের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর Logo নব্য রাজাকার ঠেকাতে মাঠে ইবি ছাত্রলীগ

জার্মানির মিউনিকে প্রবাসী বাঙালিদের ঈদ পুনর্মিলনী

Spread the love

জার্মানির মিউনিখ শহরে সোহাগ অডিটোরিয়ামে জামার্ন এগ্রো রিসোর্টের সৌজন্যে অনুষ্ঠিত হয়েছে ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠান। এক আনন্দঘন পরিবেশে জার্মানির মিউনিখে বসবাসকারী প্রবাসী বাঙ্গালিরা যেন মিলন মেলায় পরিণত হয়।

অনুষ্ঠানের উদ্ধোধনী ঘোষণা করেন অহেদুল ইসলাম দিনু, সভাপতিত্ব করেন আনোয়ার হোসেন, অনুষ্ঠানের সমন্বয়কারী ও উপস্থাপনায় ছিলেন মুরাদ মাহমুদ ব্যাপারি। এছাড়াও অনুষ্ঠানে সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন মহিউদ্দিন আহমেদ, আতাতুর রহমান,পারভেজ মজুমদার,বাদল হোসেন,মিরাজ মিয়া ও সেলিম ভূইয়া।

আরও পড়ুন>>কাবাডি ও দাবাকে স্কুল পর্যায়ে অন্তর্ভুক্ত করার উদ্যোগ গ্রহণ
জামার্ন এগ্রো রিসোর্টের স্বত্বাধিকারী বলেন, ঈদ পুনর্মিলনীর উদ্দেশ্য হচ্ছে জার্মানির মিউনিখ শহরে বসবাসকারী প্রবাসীদের মধ্যে একটা আনন্দের মিলন মেলা তৈরি করা। ঈদের সংগীতের মাধ্যদিয়ে অনুষ্ঠানের কাযর্ক্রম শুরু হয়।

অনুষ্ঠানের প্রারম্ভে কোরাআন থেকে তেলোয়াত করেন শামীম আল মামুন তিনি বলেন,“দল-মত নির্বিশেষে আমরা সবাই মিউনিখে ঈদ পুনর্মিলনী উদযাপন করছি। জার্মানিতে বসবাসকারী বাঙালি ভাই-বোনদের সহযোগিতা ও মাতৃভাষা প্রসারে আমরা কাজ করে যাব।”

আরও পড়ুন>>দুর্নীতির অভিযোগে বদলি বরখাস্ত অবসর যথেষ্ট নয়: টিআইবি

অনুষ্ঠানের সভাপতি আনোয়ার হোসেন বলেন,“ভবিষ্যতে এ ধরনের আয়োজনের জন্য সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় একটি সংগঠন করে জার্মানিতে বাংলা সংস্কৃতিকে প্রশস্ত করার লক্ষ্যে আমরা কাজ করে যাব।”

সমন্বয়কারী ও উপস্থাপক মুরাদ মাহমুদ ব্যাপারি বলেন,“আমাদের মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে বাংলা সংস্কৃতিকে প্রবাসীদের মধ্যে ছড়িয়ে দেওয়া পাশাপাশি সেবামূলক কাজ করে যাওয়া।”

আরও পড়ুন>>আলাউদ্দিন নাসিম: আমলা থেকে এমপি, হাজার কোটির মালিক
অনুষ্ঠানে সংগীত, নৃত্যসহ নানান সংস্কৃতিকে উপস্থাপন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রবাসে অবস্থানরত নতুন প্রজন্ম বাংলা সংস্কৃতিকে তুলে ধরে। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন লুৎফর শেখ, সেঁজুতি, রোমেল ও সহেলসহ কিছু শিশু শিল্পী।

অনুষ্ঠান প্রবাসী বাঙালিরা এক খন্ড বাংলাদেশকে অনুভব করেন। লটারিতে উপহার হিসেবে ছিল ফ্রিজ, টেলিভিশন , ওভেন, টেস্টারসহ প্রায় ২৫ ধরণের ইলেকট্রনিক সামগ্রী। বিজয়ীদের মধ্যে উপহার তুলে দেওয়া হয়।

জনপ্রিয় সংবাদ

নয়াদিল্লিতে আধুনিক পিথিয়ান গেমস প্রতিষ্ঠাতার বাংলাদেশ হাইকমিশনারের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ

জার্মানির মিউনিকে প্রবাসী বাঙালিদের ঈদ পুনর্মিলনী

আপডেট সময় : ১১:১২:৫২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৪ জুলাই ২০২৪
Spread the love

জার্মানির মিউনিখ শহরে সোহাগ অডিটোরিয়ামে জামার্ন এগ্রো রিসোর্টের সৌজন্যে অনুষ্ঠিত হয়েছে ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠান। এক আনন্দঘন পরিবেশে জার্মানির মিউনিখে বসবাসকারী প্রবাসী বাঙ্গালিরা যেন মিলন মেলায় পরিণত হয়।

অনুষ্ঠানের উদ্ধোধনী ঘোষণা করেন অহেদুল ইসলাম দিনু, সভাপতিত্ব করেন আনোয়ার হোসেন, অনুষ্ঠানের সমন্বয়কারী ও উপস্থাপনায় ছিলেন মুরাদ মাহমুদ ব্যাপারি। এছাড়াও অনুষ্ঠানে সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন মহিউদ্দিন আহমেদ, আতাতুর রহমান,পারভেজ মজুমদার,বাদল হোসেন,মিরাজ মিয়া ও সেলিম ভূইয়া।

আরও পড়ুন>>কাবাডি ও দাবাকে স্কুল পর্যায়ে অন্তর্ভুক্ত করার উদ্যোগ গ্রহণ
জামার্ন এগ্রো রিসোর্টের স্বত্বাধিকারী বলেন, ঈদ পুনর্মিলনীর উদ্দেশ্য হচ্ছে জার্মানির মিউনিখ শহরে বসবাসকারী প্রবাসীদের মধ্যে একটা আনন্দের মিলন মেলা তৈরি করা। ঈদের সংগীতের মাধ্যদিয়ে অনুষ্ঠানের কাযর্ক্রম শুরু হয়।

অনুষ্ঠানের প্রারম্ভে কোরাআন থেকে তেলোয়াত করেন শামীম আল মামুন তিনি বলেন,“দল-মত নির্বিশেষে আমরা সবাই মিউনিখে ঈদ পুনর্মিলনী উদযাপন করছি। জার্মানিতে বসবাসকারী বাঙালি ভাই-বোনদের সহযোগিতা ও মাতৃভাষা প্রসারে আমরা কাজ করে যাব।”

আরও পড়ুন>>দুর্নীতির অভিযোগে বদলি বরখাস্ত অবসর যথেষ্ট নয়: টিআইবি

অনুষ্ঠানের সভাপতি আনোয়ার হোসেন বলেন,“ভবিষ্যতে এ ধরনের আয়োজনের জন্য সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় একটি সংগঠন করে জার্মানিতে বাংলা সংস্কৃতিকে প্রশস্ত করার লক্ষ্যে আমরা কাজ করে যাব।”

সমন্বয়কারী ও উপস্থাপক মুরাদ মাহমুদ ব্যাপারি বলেন,“আমাদের মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে বাংলা সংস্কৃতিকে প্রবাসীদের মধ্যে ছড়িয়ে দেওয়া পাশাপাশি সেবামূলক কাজ করে যাওয়া।”

আরও পড়ুন>>আলাউদ্দিন নাসিম: আমলা থেকে এমপি, হাজার কোটির মালিক
অনুষ্ঠানে সংগীত, নৃত্যসহ নানান সংস্কৃতিকে উপস্থাপন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রবাসে অবস্থানরত নতুন প্রজন্ম বাংলা সংস্কৃতিকে তুলে ধরে। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন লুৎফর শেখ, সেঁজুতি, রোমেল ও সহেলসহ কিছু শিশু শিল্পী।

অনুষ্ঠান প্রবাসী বাঙালিরা এক খন্ড বাংলাদেশকে অনুভব করেন। লটারিতে উপহার হিসেবে ছিল ফ্রিজ, টেলিভিশন , ওভেন, টেস্টারসহ প্রায় ২৫ ধরণের ইলেকট্রনিক সামগ্রী। বিজয়ীদের মধ্যে উপহার তুলে দেওয়া হয়।