ঢাকা ১০:৩৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গৃহকর্মীকে ধর্ষণ করে ভিডিও ফেসবুকে, চিকিৎসক গ্রেপ্তার

Spread the love

১৪ বছর বয়সী গৃহকর্মীকে ধর্ষণ করে মোবাইলে ভিডিও ধারণের পর তা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার অভিযোগে ফরহাদ উজ্জামান (৩৭) নামের এক চিকিৎসককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

আরও পড়ুন>>পেরুকে হারিয়ে দুর্দান্ত জয় আর্জেন্টিনার

শনিবার (২৯ জুন) রাতে গাজীপুরের শ্রীপুরে চিকিৎসকের নিজ চেম্বার থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এর আগে ভুক্তভোগী কিশোরীর মা শ্রীপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। গ্রেপ্তার চিকিৎসক ফরহাদ উজ্জামান শ্রীপুর পৌর শহরের বাজার এলাকার অ্যাডভোকেট আবুল হাসেমের ছেলে।

আরও পড়ুন>>রেস্টুরেন্টে বসেই প্রেমিকের পুরুষাঙ্গ কর্তন প্রেমিকার

শ্রীপুর থানায় দায়ের করা ভুক্তভোগী মায়ের অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, কিশোরীর বাবা রিকশা চালান ও মা বিভিন্ন বাসাবাড়িতে গৃহিণীর কাজ করেন। দুই মাস আগে তাদের পঞ্চম মেয়েকে (১৪) শ্রীপুর পৌর শহরের মাছ বাজার সংলগ্ন অ্যাডভোকেট আবুল হাসেমের বাড়িতে মাসিক বেতনে গৃহকর্মীর কাজে দেন। সেখানে কাজে যোগ দেয়ার পর থেকেই অ্যাডভোকেট আবুল হাসেমের ছেলে ডা. ফরহাদ উজ্জামান তার কিশোরীকে বিভিন্ন প্রলোভনে বাসায় জোর করে একাধিকবার ধর্ষণ করে।

এ ছাড়া বাসার নিচতলায় রোগী দেখার চেম্বারে নিয়েও একাধিকবার ধর্ষণ করেন এবং মোবাইলে সেই ভিডিও ধারণ করেন। গত ২১ জুন সকাল সাড়ে ৬টার বাসার নিচে রোগী দেখার চেম্বার পরিষ্কার করার কথা বলে তার মেয়েকে মোবাইলে ধারণ করা ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছেড়ে দেয়ার ভয় দেখিয়ে আবারও ধর্ষণ করে। বিষয়টি জানার পর মেয়েকে ওই বাড়ি থেকে নিজ বাড়িতে নিয়ে আসেন।

আরও পড়ুন>>শত কোটি টাকার সম্পদের মালিক মতিউর কন্যা ইপ্সিতা

কিন্তু পরবর্তীতে তার আত্মীয়-স্বজনসহ বিভিন্নজন ব্যক্তি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভিডিও প্রচারের বিষয়টি জানায়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে শ্রীপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আকবর আলী খান জানান, অভিযোগের প্রেক্ষিতে থানায় মামলা রুজু হয়েছে। আসামিকে আজ (রোববার) আদালতে পাঠানো হবে বলেও জানান তিনি।

জনপ্রিয় সংবাদ

গৃহকর্মীকে ধর্ষণ করে ভিডিও ফেসবুকে, চিকিৎসক গ্রেপ্তার

আপডেট সময় : ১০:৪৭:১৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৩০ জুন ২০২৪
Spread the love

১৪ বছর বয়সী গৃহকর্মীকে ধর্ষণ করে মোবাইলে ভিডিও ধারণের পর তা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার অভিযোগে ফরহাদ উজ্জামান (৩৭) নামের এক চিকিৎসককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

আরও পড়ুন>>পেরুকে হারিয়ে দুর্দান্ত জয় আর্জেন্টিনার

শনিবার (২৯ জুন) রাতে গাজীপুরের শ্রীপুরে চিকিৎসকের নিজ চেম্বার থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এর আগে ভুক্তভোগী কিশোরীর মা শ্রীপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। গ্রেপ্তার চিকিৎসক ফরহাদ উজ্জামান শ্রীপুর পৌর শহরের বাজার এলাকার অ্যাডভোকেট আবুল হাসেমের ছেলে।

আরও পড়ুন>>রেস্টুরেন্টে বসেই প্রেমিকের পুরুষাঙ্গ কর্তন প্রেমিকার

শ্রীপুর থানায় দায়ের করা ভুক্তভোগী মায়ের অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, কিশোরীর বাবা রিকশা চালান ও মা বিভিন্ন বাসাবাড়িতে গৃহিণীর কাজ করেন। দুই মাস আগে তাদের পঞ্চম মেয়েকে (১৪) শ্রীপুর পৌর শহরের মাছ বাজার সংলগ্ন অ্যাডভোকেট আবুল হাসেমের বাড়িতে মাসিক বেতনে গৃহকর্মীর কাজে দেন। সেখানে কাজে যোগ দেয়ার পর থেকেই অ্যাডভোকেট আবুল হাসেমের ছেলে ডা. ফরহাদ উজ্জামান তার কিশোরীকে বিভিন্ন প্রলোভনে বাসায় জোর করে একাধিকবার ধর্ষণ করে।

এ ছাড়া বাসার নিচতলায় রোগী দেখার চেম্বারে নিয়েও একাধিকবার ধর্ষণ করেন এবং মোবাইলে সেই ভিডিও ধারণ করেন। গত ২১ জুন সকাল সাড়ে ৬টার বাসার নিচে রোগী দেখার চেম্বার পরিষ্কার করার কথা বলে তার মেয়েকে মোবাইলে ধারণ করা ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছেড়ে দেয়ার ভয় দেখিয়ে আবারও ধর্ষণ করে। বিষয়টি জানার পর মেয়েকে ওই বাড়ি থেকে নিজ বাড়িতে নিয়ে আসেন।

আরও পড়ুন>>শত কোটি টাকার সম্পদের মালিক মতিউর কন্যা ইপ্সিতা

কিন্তু পরবর্তীতে তার আত্মীয়-স্বজনসহ বিভিন্নজন ব্যক্তি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভিডিও প্রচারের বিষয়টি জানায়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে শ্রীপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আকবর আলী খান জানান, অভিযোগের প্রেক্ষিতে থানায় মামলা রুজু হয়েছে। আসামিকে আজ (রোববার) আদালতে পাঠানো হবে বলেও জানান তিনি।