ঢাকা ০১:৪১ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ময়মনসিংহে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত

Spread the love

ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য ও ত্যাগের মহিমায় ময়মনসিংহে উদযাপিত হচ্ছে পবিত্র ঈদুল আজহা। নগরীর আঞ্জুমান ঈদগাহ মাঠে অনুষ্ঠিত ঈদের প্রধান জামাতে ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের ঢল নামে।
সোমবার (১৭ জুন) সকাল সাড়ে ৭টায় শুরু হয় এ জামাত।

জেলা প্রশাসক দিদারে আলম মোহাম্মদ মাকসুদ চৌধুরী, সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. ইউসুফ আলী ও প্রশাসনের বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তা ছাড়াও বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতা এবং বিভিন্ন শ্রেণিপেশার ধর্মপ্রাণ মুসল্লি প্রধান এ ঈদ জামাতে নামাজ আদায় করেন। এতে ইমামতি করেন আঞ্জুমান ঈদগাহ মসজিদের পেশ ইমাম মুফতি আব্দুল্লাহ আল মামুন।

নামাজ শেষে দেশের উন্নয়ন ও বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর শান্তি ও সুদৃঢ় ঐক্য কামনা করে মোনাজাত করা হয়। পরে মুসল্লিরা কোলাকুলি করে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করেন।

একই ঈদগাহে সকাল সাড়ে ৮টায় দ্বিতীয় জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়া জেলার ১৫৭টি মসজিদসহ আড়াই হাজার ঈদগাহ ময়দানে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। প্রতি বছরের মতো এবারও বৃহৎ ঈদ জামাতগুলোর নিরাপত্তায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সর্বোচ্চ তৎপরতা দেখা গেছে।

নামাজের পরই সিটি করপোরেশনের নির্ধারিত ৫০৮টি স্থান এবং বিভিন্ন সড়কের পাশে চলে পশু কোরবানি।
জেলা প্রশাসক দিদারে আলম মোহাম্মদ মাকসুদ চৌধুরী বলেন, চামড়া যেন ক্ষতিগ্রস্ত না হয়, এ জন্য বাজারে পর্যাপ্ত লবণ মজুত রয়েছে। কোনো সিন্ডিকেটের কবলে পড়ে ব্যবসায়ীরা যেন ক্ষতিগ্রস্ত না হন, তা তদারকি করা হচ্ছে। ময়মনসিংহ জেলা পুলিশ সুপার মাছুম আহাম্মেদ ভূঁঞা বলেন, প্রতি বছরের মতো এবারও বড় ঈদ জামাতগুলোর নিরাপত্তায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সর্বোচ্চ তৎপরতা ছিল। জোরদার নিরাপত্তা ব্যবস্থার মধ্যে দিয়ে শান্তিপূর্ণভাবে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।

জনপ্রিয় সংবাদ

ময়মনসিংহে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত

আপডেট সময় : ১০:৫৮:৪৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪
Spread the love

ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য ও ত্যাগের মহিমায় ময়মনসিংহে উদযাপিত হচ্ছে পবিত্র ঈদুল আজহা। নগরীর আঞ্জুমান ঈদগাহ মাঠে অনুষ্ঠিত ঈদের প্রধান জামাতে ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের ঢল নামে।
সোমবার (১৭ জুন) সকাল সাড়ে ৭টায় শুরু হয় এ জামাত।

জেলা প্রশাসক দিদারে আলম মোহাম্মদ মাকসুদ চৌধুরী, সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. ইউসুফ আলী ও প্রশাসনের বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তা ছাড়াও বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতা এবং বিভিন্ন শ্রেণিপেশার ধর্মপ্রাণ মুসল্লি প্রধান এ ঈদ জামাতে নামাজ আদায় করেন। এতে ইমামতি করেন আঞ্জুমান ঈদগাহ মসজিদের পেশ ইমাম মুফতি আব্দুল্লাহ আল মামুন।

নামাজ শেষে দেশের উন্নয়ন ও বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর শান্তি ও সুদৃঢ় ঐক্য কামনা করে মোনাজাত করা হয়। পরে মুসল্লিরা কোলাকুলি করে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করেন।

একই ঈদগাহে সকাল সাড়ে ৮টায় দ্বিতীয় জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়া জেলার ১৫৭টি মসজিদসহ আড়াই হাজার ঈদগাহ ময়দানে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। প্রতি বছরের মতো এবারও বৃহৎ ঈদ জামাতগুলোর নিরাপত্তায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সর্বোচ্চ তৎপরতা দেখা গেছে।

নামাজের পরই সিটি করপোরেশনের নির্ধারিত ৫০৮টি স্থান এবং বিভিন্ন সড়কের পাশে চলে পশু কোরবানি।
জেলা প্রশাসক দিদারে আলম মোহাম্মদ মাকসুদ চৌধুরী বলেন, চামড়া যেন ক্ষতিগ্রস্ত না হয়, এ জন্য বাজারে পর্যাপ্ত লবণ মজুত রয়েছে। কোনো সিন্ডিকেটের কবলে পড়ে ব্যবসায়ীরা যেন ক্ষতিগ্রস্ত না হন, তা তদারকি করা হচ্ছে। ময়মনসিংহ জেলা পুলিশ সুপার মাছুম আহাম্মেদ ভূঁঞা বলেন, প্রতি বছরের মতো এবারও বড় ঈদ জামাতগুলোর নিরাপত্তায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সর্বোচ্চ তৎপরতা ছিল। জোরদার নিরাপত্তা ব্যবস্থার মধ্যে দিয়ে শান্তিপূর্ণভাবে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।