ঢাকা ১০:৩০ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দুর্গত এলাকা পরিদর্শনে কলাপাড়ায় আসছেন প্রধানমন্ত্রী

Spread the love

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘূর্নিঝড় রেমাল’র তান্ডবে ক্ষতিগ্রস্ত উপকূলের দুর্গত এলাকা পরিদর্শন ও দুর্গত মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণের জন্য বৃহস্পতিবার (৩০ মে) পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় আসবেন।

বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে বিমান যোগে তিঁনি কলাপাড়া হ্যালিপ্যাডে অবতরণ করবেন। পরে দুপুর ১২টা ৪০ মিনিটের দিকে তিঁনি সড়ক পথে পৌরশহরের সরকারী মোজাহার উদ্দিন বিশ্বাস কলেজ মাঠে ২ হাজার দুর্গত মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করবেন। পরে দুপুর ২টায় পায়রা বন্দরের কনফারেন্স রুমে বরিশাল বিভাগীয় উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সাথে তাঁর মতবিনিময় করার কথা রয়েছে। মতবিনিময় শেষে তিঁনি পায়রা বন্দর থেকে আকাশ পথে ঢাকায় ফিরবেন বলে জানিয়েছেন পটুয়াখালী জেলা প্রশাসক মো. নুর কুতুবুল আলম।

এদিকে প্রধানমন্ত্রীর আগমন ঘিরে উপকূলের দুর্গত মানুষের চোখে মুখে এখন খুশীর ঝিলিক। প্রধানমন্ত্রীর কাছে বন্যা দুর্গত উপকূলীয় এলাকার মানুষের একটাই দাবী ’টেকসই বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ চাই’। উপকূলীয় এলাকার মানুষের জীবন ও সম্পদ রক্ষায় টেকসই বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের বিকল্প নেই বলছেন দুর্গত এলাকার ক্ষতিগ্রস্ত মানুষ।

প্রধানমন্ত্রীর আগমন সফল করতে মঙ্গলবার জেলা প্রশাসন ও জেলা আওয়ামীলীগের উদ্দ্যোগে কলাপাড়ায় প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর আগমনকে ঘিরে শহরে মিছিল করেছে যুবলীগ, ছাত্রলীগ।

কলাপাড়া থানার ওসি আলী আহম্মেদ বলেন, প্রধানমন্ত্রীর আগমনের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে প্রশাসন। পুরো শহর নিরাপত্তার চাঁদরে ঢেকে দেয়া হয়েছে। শহরে সিসি ক্যামেরা স্থাপন সহ কয়েক স্তরের নিরাপত্তা বলয় তৈরী করা হয়েছে।

জনপ্রিয় সংবাদ

দুর্গত এলাকা পরিদর্শনে কলাপাড়ায় আসছেন প্রধানমন্ত্রী

আপডেট সময় : ০৬:০৮:১০ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৯ মে ২০২৪
Spread the love

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘূর্নিঝড় রেমাল’র তান্ডবে ক্ষতিগ্রস্ত উপকূলের দুর্গত এলাকা পরিদর্শন ও দুর্গত মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণের জন্য বৃহস্পতিবার (৩০ মে) পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় আসবেন।

বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে বিমান যোগে তিঁনি কলাপাড়া হ্যালিপ্যাডে অবতরণ করবেন। পরে দুপুর ১২টা ৪০ মিনিটের দিকে তিঁনি সড়ক পথে পৌরশহরের সরকারী মোজাহার উদ্দিন বিশ্বাস কলেজ মাঠে ২ হাজার দুর্গত মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করবেন। পরে দুপুর ২টায় পায়রা বন্দরের কনফারেন্স রুমে বরিশাল বিভাগীয় উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সাথে তাঁর মতবিনিময় করার কথা রয়েছে। মতবিনিময় শেষে তিঁনি পায়রা বন্দর থেকে আকাশ পথে ঢাকায় ফিরবেন বলে জানিয়েছেন পটুয়াখালী জেলা প্রশাসক মো. নুর কুতুবুল আলম।

এদিকে প্রধানমন্ত্রীর আগমন ঘিরে উপকূলের দুর্গত মানুষের চোখে মুখে এখন খুশীর ঝিলিক। প্রধানমন্ত্রীর কাছে বন্যা দুর্গত উপকূলীয় এলাকার মানুষের একটাই দাবী ’টেকসই বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ চাই’। উপকূলীয় এলাকার মানুষের জীবন ও সম্পদ রক্ষায় টেকসই বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের বিকল্প নেই বলছেন দুর্গত এলাকার ক্ষতিগ্রস্ত মানুষ।

প্রধানমন্ত্রীর আগমন সফল করতে মঙ্গলবার জেলা প্রশাসন ও জেলা আওয়ামীলীগের উদ্দ্যোগে কলাপাড়ায় প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর আগমনকে ঘিরে শহরে মিছিল করেছে যুবলীগ, ছাত্রলীগ।

কলাপাড়া থানার ওসি আলী আহম্মেদ বলেন, প্রধানমন্ত্রীর আগমনের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে প্রশাসন। পুরো শহর নিরাপত্তার চাঁদরে ঢেকে দেয়া হয়েছে। শহরে সিসি ক্যামেরা স্থাপন সহ কয়েক স্তরের নিরাপত্তা বলয় তৈরী করা হয়েছে।