ঢাকা ০১:৩০ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নালিতাবাড়ীতে নির্বাচনী সভা থেকে  বিরিয়ানি জব্দ

Spread the love

শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে এক চেয়ারম্যান প্রার্থীর পথসভা থেকে বিরিয়ানি জব্দ করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

শুক্রবার দিবাগত রাত সাড়ে ৯ টার দিকে উপজেলার রুপনারায়নকুড়া ইউনিয়নের বাগিচাপুর গ্রামে ঘোড়া প্রতিকের চেয়ারম্যান প্রার্থী ও আওয়ামী লীগ নেতা হাজি মোশারফ হোসেনের সমর্থনে অনুষ্ঠিত পথসভায় অভিযান চালিয়ে এসব বিরিয়ানি জব্দ করে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট প্রদীপ কুমার দাস। তবে ভ্রাম্যমান আদালতের উপস্থিতি টের পেয়ে সংশ্লিষ্ট সবাই সটকে পড়ায় কাউকে আটক বা জরিমানা করা সম্ভব হয়নি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শুক্রবার রাতে নালিতাবাড়ী উপজেলার রুপনারায়নকুড়া ইউনিয়নের বাগিচাপুর গ্রামে ঘোড়া প্রতিকের চেয়ারম্যান প্রার্থী হাজি মোশারফ হোসেনের সমর্থনে একটি পথসভার আয়োজন করা হয়। সভায় ৪ ডেক বিরিয়ানি রান্না করে রাখা হয়েছে, এমন সংবাদের ভিত্তিতে ভ্রাম্যমান আদালত সেখানে গিয়ে অভিযান চালিয়ে ৪ ডেক বিরিয়ানি জব্দ করে। পরে জব্দকৃত বিরিয়ানি উপজেলা সদরে নিয়ে যান। তবে সভাস্থলে বিরিয়ানির রাখার কথা কোন প্রার্থী বা সমর্থক স্বীকার করেননি।

পরে ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মঞ্জুরুল হক মঞ্জু ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নিকট তার ইউনিয়নে আর কখনো এ ধরনের কাজ হবেনা মর্মে অঙ্গীকারনামা প্রদান করেন।

এ ব্যাপারে ঘোড়া প্রতীকের প্রার্থী ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাজী মোশারফ হোসেন সাংবাদিকদের জানান, আমি এ ব্যাপারে কিছু জানিনা। আমি নির্বাচনী প্রচারনা শেষ করে বাসায় ফিরে এসেছি।

নালিতাবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইলিশায় রিছিল সাংবাদিকদের বলেন, কার বিরিয়ানি? এর প্রমাণ না পাওয়ায় কারোর বিরুদ্ধে জরিমানা করা সম্ভব হয়নি।

শেরপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং অফিসার মোক্তাদিরুল আহমেদ বলেন, রুপনারায়নকুড়া ইউনিয়নের বাগিচাপুর গ্রামে ভোটারদের নিয়ে জমায়েত করে খাবার বিতরণ করার মাধ্যমে নির্বাচনী আচরণ বিধি লঙ্ঘন করা হচ্ছে বলে আমাদের কাছে খবর আসে।

পরে ভ্রাম্যমান আদালত সেখানে অভিযান চালালে ঘটনার সত্যতা পাওয়া যায়। তবে কেউ দোষ স্বীকার না করায় কারো বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া সম্ভব হয়নি। জব্দকৃত বিরিয়ানি স্থানীয় ইয়াতিম খানার ইয়াতিমদের মাঝে বিতরণ করা হয়েছে।

জনপ্রিয় সংবাদ

নালিতাবাড়ীতে নির্বাচনী সভা থেকে  বিরিয়ানি জব্দ

আপডেট সময় : ০৮:০৩:২৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪
Spread the love

শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে এক চেয়ারম্যান প্রার্থীর পথসভা থেকে বিরিয়ানি জব্দ করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

শুক্রবার দিবাগত রাত সাড়ে ৯ টার দিকে উপজেলার রুপনারায়নকুড়া ইউনিয়নের বাগিচাপুর গ্রামে ঘোড়া প্রতিকের চেয়ারম্যান প্রার্থী ও আওয়ামী লীগ নেতা হাজি মোশারফ হোসেনের সমর্থনে অনুষ্ঠিত পথসভায় অভিযান চালিয়ে এসব বিরিয়ানি জব্দ করে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট প্রদীপ কুমার দাস। তবে ভ্রাম্যমান আদালতের উপস্থিতি টের পেয়ে সংশ্লিষ্ট সবাই সটকে পড়ায় কাউকে আটক বা জরিমানা করা সম্ভব হয়নি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শুক্রবার রাতে নালিতাবাড়ী উপজেলার রুপনারায়নকুড়া ইউনিয়নের বাগিচাপুর গ্রামে ঘোড়া প্রতিকের চেয়ারম্যান প্রার্থী হাজি মোশারফ হোসেনের সমর্থনে একটি পথসভার আয়োজন করা হয়। সভায় ৪ ডেক বিরিয়ানি রান্না করে রাখা হয়েছে, এমন সংবাদের ভিত্তিতে ভ্রাম্যমান আদালত সেখানে গিয়ে অভিযান চালিয়ে ৪ ডেক বিরিয়ানি জব্দ করে। পরে জব্দকৃত বিরিয়ানি উপজেলা সদরে নিয়ে যান। তবে সভাস্থলে বিরিয়ানির রাখার কথা কোন প্রার্থী বা সমর্থক স্বীকার করেননি।

পরে ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মঞ্জুরুল হক মঞ্জু ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নিকট তার ইউনিয়নে আর কখনো এ ধরনের কাজ হবেনা মর্মে অঙ্গীকারনামা প্রদান করেন।

এ ব্যাপারে ঘোড়া প্রতীকের প্রার্থী ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাজী মোশারফ হোসেন সাংবাদিকদের জানান, আমি এ ব্যাপারে কিছু জানিনা। আমি নির্বাচনী প্রচারনা শেষ করে বাসায় ফিরে এসেছি।

নালিতাবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইলিশায় রিছিল সাংবাদিকদের বলেন, কার বিরিয়ানি? এর প্রমাণ না পাওয়ায় কারোর বিরুদ্ধে জরিমানা করা সম্ভব হয়নি।

শেরপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং অফিসার মোক্তাদিরুল আহমেদ বলেন, রুপনারায়নকুড়া ইউনিয়নের বাগিচাপুর গ্রামে ভোটারদের নিয়ে জমায়েত করে খাবার বিতরণ করার মাধ্যমে নির্বাচনী আচরণ বিধি লঙ্ঘন করা হচ্ছে বলে আমাদের কাছে খবর আসে।

পরে ভ্রাম্যমান আদালত সেখানে অভিযান চালালে ঘটনার সত্যতা পাওয়া যায়। তবে কেউ দোষ স্বীকার না করায় কারো বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া সম্ভব হয়নি। জব্দকৃত বিরিয়ানি স্থানীয় ইয়াতিম খানার ইয়াতিমদের মাঝে বিতরণ করা হয়েছে।