ঢাকা ০৭:০১ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নিত্যপণ্যের লাগামহীন দাম

  • অর্থ ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ১১:১৪:০৯ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৫ মার্চ ২০২৪
  • ৫২৭ বার পড়া হয়েছে
Spread the love

সরকারের নানা পদক্ষেপ ও হুঁশিয়ারির পরেও কোনভাবে নিয়ন্ত্রণে আনা যাচ্ছে না নিত্যপণ্যের দাম। সরকার নির্ধারিত মূল্যে বিক্রি হচ্ছে না অনেক পণ্যই। এতে ক্ষোভ জানিয়েছে সাধারণ মানুষ। তবে কিছুটা স্বস্তি এনে দিয়েছে প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের স্বল্পমূল্যে বিক্রয় কার্যক্রম। এছাড়া অনেক জনপ্রতিনিধি ব্যক্তিগত উদ্যোগে স্বল্প মূল্যে বিক্রি করছেন গরুর মাংসসহ বিভিন্ন নিত্যপণ্য।

রমজান শুরুর আগে থেকেই নিত্যপণ্যের বাজার নিয়ন্ত্রণে নানা উদ্যোগ নেয় সরকার। সিন্ডিকেট ভাঙতে কঠোর হুঁশিয়ারী দেয়া হয়। কিন্তু এসব উদ্যোগ তেমন কাজে লাগেনি। রোজার শুরু থেকেই বিভিন্ন পণ্যের দাম হয়েছে আকাশছোঁয়া।

সরকার কিছু কিছু পণ্যের দাম বেধে দিলেও তা মানছে না কোন ব্যবসায়ী। এজন্য সরকারের নজরদারির অভাবে দায়ী করছেন ব্যবসায়ী নেতারা।

নিত্যপণ্যের দাম এভাবে লাগামহীন বাড়তে থাকায় ক্ষোভ জানিয়েছে সাধারণ মানুষ। তবে, কিছুটা স্বস্তি এনে দিয়েছে সরকারের প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের ট্রাকসেল কার্যক্রম। রাজধানীর ২৫ টির বেশি স্থানে মাছ-মাংসসহ বিভিন্ন পণ্য বিক্রি হচ্ছে স্বল্প মূল্যে।

এছাড়া অনেক জনপ্রতিনিধি ব্যক্তিগত উদ্যোগে স্বল্প মূল্যে গরুর মাংসসহ বেশ কিছু নিত্যপণ্য বিক্রি করছেন। ঢাকা দক্ষিণ সিটির ২৬ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলরের উদ্যোগে ৫৯০ টাকা কেজি দরে বিক্রি করা হচ্ছে গরুর মাংস। এতে স্বস্তি জানান ক্রেতারা। বাজার নিয়ন্ত্রণে সরকারের কঠোর নজরদারির দাবি জানিয়েছে ভোক্তারা।

জনপ্রিয় সংবাদ

নিত্যপণ্যের লাগামহীন দাম

আপডেট সময় : ১১:১৪:০৯ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৫ মার্চ ২০২৪
Spread the love

সরকারের নানা পদক্ষেপ ও হুঁশিয়ারির পরেও কোনভাবে নিয়ন্ত্রণে আনা যাচ্ছে না নিত্যপণ্যের দাম। সরকার নির্ধারিত মূল্যে বিক্রি হচ্ছে না অনেক পণ্যই। এতে ক্ষোভ জানিয়েছে সাধারণ মানুষ। তবে কিছুটা স্বস্তি এনে দিয়েছে প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের স্বল্পমূল্যে বিক্রয় কার্যক্রম। এছাড়া অনেক জনপ্রতিনিধি ব্যক্তিগত উদ্যোগে স্বল্প মূল্যে বিক্রি করছেন গরুর মাংসসহ বিভিন্ন নিত্যপণ্য।

রমজান শুরুর আগে থেকেই নিত্যপণ্যের বাজার নিয়ন্ত্রণে নানা উদ্যোগ নেয় সরকার। সিন্ডিকেট ভাঙতে কঠোর হুঁশিয়ারী দেয়া হয়। কিন্তু এসব উদ্যোগ তেমন কাজে লাগেনি। রোজার শুরু থেকেই বিভিন্ন পণ্যের দাম হয়েছে আকাশছোঁয়া।

সরকার কিছু কিছু পণ্যের দাম বেধে দিলেও তা মানছে না কোন ব্যবসায়ী। এজন্য সরকারের নজরদারির অভাবে দায়ী করছেন ব্যবসায়ী নেতারা।

নিত্যপণ্যের দাম এভাবে লাগামহীন বাড়তে থাকায় ক্ষোভ জানিয়েছে সাধারণ মানুষ। তবে, কিছুটা স্বস্তি এনে দিয়েছে সরকারের প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের ট্রাকসেল কার্যক্রম। রাজধানীর ২৫ টির বেশি স্থানে মাছ-মাংসসহ বিভিন্ন পণ্য বিক্রি হচ্ছে স্বল্প মূল্যে।

এছাড়া অনেক জনপ্রতিনিধি ব্যক্তিগত উদ্যোগে স্বল্প মূল্যে গরুর মাংসসহ বেশ কিছু নিত্যপণ্য বিক্রি করছেন। ঢাকা দক্ষিণ সিটির ২৬ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলরের উদ্যোগে ৫৯০ টাকা কেজি দরে বিক্রি করা হচ্ছে গরুর মাংস। এতে স্বস্তি জানান ক্রেতারা। বাজার নিয়ন্ত্রণে সরকারের কঠোর নজরদারির দাবি জানিয়েছে ভোক্তারা।