ঢাকা ১১:২৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ন্যাটোর ৩২তম সদস্যরাষ্ট্র হলো সুইডেন

Spread the love

সামরিক জোট ন্যাটোতে আনুষ্ঠানিকভাবে যোগ দিয়েছে সুইডেন।

বৃহস্পতিবার (০৭ মার্চ) যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াশিংটনে আনুষ্ঠানিকতা শেষে মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোটটিতে যোগ দেয় স্টকহোম। এর মধ্য দিয়ে ন্যাটোর ৩২তম সদস্যরাষ্ট্র হলো সুইডেন।

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ শুরুর পরই নিজেদের নিরাপত্তা জোরদারে ন্যাটোতে যোগ দেয়ার আবেদন করে সুইডেন ও ফিনল্যান্ড। গত বছর ফিনল্যান্ড সদস্যপদ পেলেও তুরস্কের বাধায় আটকে যায় সুইডেন।

চলতি বছরের জানুয়ারিতে, তুরস্ক বাধা তুলে নিলে আপত্তি জানায় হাঙ্গেরি। সম্প্রতি হাঙ্গেরিও সুইডেনকে ন্যাটোতে নিতে রাজী হলে কাটে সব বাধা। আর তাতেই আবেদনের প্রায় দুই বছর পর ন্যাটোর সদস্য হলো স্টকহোম।

ন্যাটোতে যোগদানের পর সুইডেনের প্রধানমন্ত্রী উলফ ক্রিস্টারসন বলেছেন, ‘ঐক্য ও সংহতি সুইডেনের জন্য আলোকবর্তিকা হিসেবে কাজ করবে।’

আর মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন বলেছেন, ‘যারা অপেক্ষা করে, তারা ভালো কিছুই পায়। আমাদের প্রতিরক্ষা জোট এখন যেকোনো সময়ের চেয়ে বেশি শক্তিশালী ও বড়।’

এ বিষয়ে ন্যাটো প্রধান জেনস স্টলটেনবার্গ এক্সে (সাবেক টুইটার) এক পোস্টে বলেছেন, সুইডেন তাদের ‘সক্ষম সশস্ত্র বাহিনী এবং প্রথম শ্রেণির প্রতিরক্ষা শিল্প’ নিয়ে ন্যাটোতে যোগ দিয়েছে। এরফলে এই জোট আরো শক্তিশালী ও নিরাপদ হয়েছে।

জনপ্রিয় সংবাদ

ন্যাটোর ৩২তম সদস্যরাষ্ট্র হলো সুইডেন

আপডেট সময় : ০৪:৪৪:৫৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৮ মার্চ ২০২৪
Spread the love

সামরিক জোট ন্যাটোতে আনুষ্ঠানিকভাবে যোগ দিয়েছে সুইডেন।

বৃহস্পতিবার (০৭ মার্চ) যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াশিংটনে আনুষ্ঠানিকতা শেষে মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোটটিতে যোগ দেয় স্টকহোম। এর মধ্য দিয়ে ন্যাটোর ৩২তম সদস্যরাষ্ট্র হলো সুইডেন।

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ শুরুর পরই নিজেদের নিরাপত্তা জোরদারে ন্যাটোতে যোগ দেয়ার আবেদন করে সুইডেন ও ফিনল্যান্ড। গত বছর ফিনল্যান্ড সদস্যপদ পেলেও তুরস্কের বাধায় আটকে যায় সুইডেন।

চলতি বছরের জানুয়ারিতে, তুরস্ক বাধা তুলে নিলে আপত্তি জানায় হাঙ্গেরি। সম্প্রতি হাঙ্গেরিও সুইডেনকে ন্যাটোতে নিতে রাজী হলে কাটে সব বাধা। আর তাতেই আবেদনের প্রায় দুই বছর পর ন্যাটোর সদস্য হলো স্টকহোম।

ন্যাটোতে যোগদানের পর সুইডেনের প্রধানমন্ত্রী উলফ ক্রিস্টারসন বলেছেন, ‘ঐক্য ও সংহতি সুইডেনের জন্য আলোকবর্তিকা হিসেবে কাজ করবে।’

আর মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন বলেছেন, ‘যারা অপেক্ষা করে, তারা ভালো কিছুই পায়। আমাদের প্রতিরক্ষা জোট এখন যেকোনো সময়ের চেয়ে বেশি শক্তিশালী ও বড়।’

এ বিষয়ে ন্যাটো প্রধান জেনস স্টলটেনবার্গ এক্সে (সাবেক টুইটার) এক পোস্টে বলেছেন, সুইডেন তাদের ‘সক্ষম সশস্ত্র বাহিনী এবং প্রথম শ্রেণির প্রতিরক্ষা শিল্প’ নিয়ে ন্যাটোতে যোগ দিয়েছে। এরফলে এই জোট আরো শক্তিশালী ও নিরাপদ হয়েছে।